শুক্রবার, ১২ আগস্ট ২০২২, ২৮ শ্রাবণ ১৪২৯, সকাল ৮:৪৬
শিরোনাম :
বঙ্গবন্ধুর মাজারে বাংলাদেশ সম্পাদক ফোরামের শ্রদ্ধা নিবেদন জাতীয় শোক দিবসে পতাকা উত্তোলন বিষয়ক নির্দেশনা দেশের সমুদ্র বন্দরসমূহে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত গৃহহীনদের ঘর দেওয়া বর্তমান সরকারের যুগান্তকারী পদক্ষেপ : পরিকল্পনামন্ত্রী তাজিয়া মিছিলের মধ্য দিয়ে পবিত্র আশুরা পালিত  স্বাধীনতা সংগ্রামে বঙ্গমাতার নেপথ্য ভূমিকা তুলে ধরলেন প্রধানমন্ত্রী আগামী দিনের নারীদের জন্য অনুপ্রেরণা হয়ে থাকবেন বঙ্গমাতা: স্পিকার  নির্বাচন হতে না দেয়ার আস্ফালন করে লাভ নেই : ওবায়দুল কাদের ওয়ান ব্যাংক ও ম্যাক্সিস সিস্টেমসের চুক্তি স্বাক্ষর বঙ্গমাতার জন্মদিনে জনতা ব্যাংকের দোয়া মাহফিল
Logo

কনে দেখে ফেরার পথে প্রবাসী বরসহ নিহত-৩



কনে দেখে ফেরার পথে প্রবাসী বরসহ নিহত-৩
https://ganobarta.com/archives/6489

গণবার্তা রিপোর্ট: বরিশালের মুলাদীতে কনে দেখে ফেরার পথে প্রবাসী বরসহ ৩জন নিহত হয়েছে। রোববার বেলা ১২টার দিকে উপজেলার মুলাদী সদর ইউনিয়নের কাজিরহাট ঈদগাঁ এলাকায় মুলাদী-মীরগঞ্জ সড়কে এই ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন কাজিরচর ইউনিয়নের বড়ইয়া গ্রামের মৃত খালেক হাওলাদারের ছেলে ইদ্রিস আলী হাওলাদার (৬০), কালাই নলীর ছেলে হারুন নলী (৪৫) এবং মোনাছেফ নলীর ছেলে ওমান প্রবাসী রাজিব নলী (২৩)। এদের মধ্যে রাজিব নলী মোটরসাইকেল চালাচ্ছিলেন বলে জানিয়েছেন প্রত্যক্ষদর্শীরা।

কাজিরচর ইউনিয়নের বড়ইয়া কাজিরচর এলাকার গ্রাম পুলিশ আব্দুল খালেক জানান, রাজিব নলী ওমানে থাকতেন। ১ সপ্তাহ আগে তিনি দেশে আসেন এবং বিয়ের জন্য বিভিন্ন জায়গায় কনে দেখছিলেন। রোববার সকালে কনে দেখে বেলা ১২টার দিকে ঘটক ইদ্রিস হাওলাদার ও চাচা হারুন নলীসহ মোটরসাইকেল যোগে বাড়ি ফিরছিলেন। মোটরসাইকেলটি কাজিরচরহাট ঈদগাঁ এলাকায় পৌছলে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে পাশ্ববর্তী গাছের সাথে ধাক্কা লাগে। এতে মোটরসাইকেলে থাকা তিনজনই ছিটকে রাস্তা ও পাশ্ববর্তী গর্তে পড়ে ঘটনাস্থলেই মারা যান।

নিহত রাজিব নলীর বড়ভাই জামাল নলী জানান, রাজিব ওমান থেকে ২ মাসের ছুটিতে বাড়িতে এসেছে। বিয়ের পর আবার ওমান যাওয়ার কথা ছিলো তাঁর। রোববার সকালে ঘটক ইদ্রিস আলী হাওলাদার ও চাচা হারুন নলীকে নিয়ে কনে দেখতে গিয়েছিলো। ফেরার পথে দুর্ঘটনার শিকার হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শী ইসমাইল হোসেন জানান, মোটরসাইকেলটি গাছের সাথে সজোড়ে আঘাত লাগায় তিনজনই ছিটকে পড়েন। এতে তাদেরে মুখমণ্ডল বিকৃত হয়ে যায়। আঘাত এবং প্রচুর রক্তক্ষরণের ফলে দুর্ঘটনার ২/৩ মিনিটের মধ্যেই সবাই মারা যান

সংবাদ পেয়ে মুলাদী থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন এবং নিহতদের লাশ থানায় নিয়ে আসেন। এব্যাপারে মুলাদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এস.এম মাকসুদুর রহমান জানান, নিহতদের পরিবারের কোনো অভিযোগ না থাকায় লাশ দাফনের জন্য স্বজনদের কাছে দেওয়া হয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন...

Developed by: Engineer BD Network