আজ, মঙ্গলবার


২৫শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ১১ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম
শিরোনাম

সুন্দরবনে গোলপাতা আহরণে ব্যস্ত বাওয়ালিরা

বুধবার, ৩১ জানুয়ারি ২০২৪
সুন্দরবনে গোলপাতা আহরণে ব্যস্ত বাওয়ালিরা
সংবাদটি শেয়ার করুন....

নিজস্ব প্রতিনিধি: সুন্দরবনের অন্যতম অর্থকরী বৃক্ষ গোলপাতা। বন বিভাগের অনুমতি পেয়ে বর্তমানে গোলপাতা আহরণে ব্যস্ত সময় পার করছেন বাওয়ালিরা। প্রতি কুইন্টাল গোলপাতায় বন বিভাগকে রাজস্ব দিতে হবে ৭০ টাকা। বুধবার (৩১ জানুয়ারি) থেকে বাওয়ালিরা সুন্দরবনে গোলপাতা আহরণের কাজ শুরু করেছেন।

গত ২৯ ও ৩০ জানুয়ারি বাওয়ালিরা গোলপাতা আহরণের জন্য বনবিভাগে রাজস্ব জমা দিয়ে পাস-পারমিট (অনুমতিপত্র) সংগ্রহ করেন। এরপর তারা নৌকাসহ অন্যান্য সরঞ্জামাদি নিয়ে বনের অভ্যন্তরের গোলপাতা কুপের উদ্দেশে যাত্রা করেন। কুপে পৌঁছে আজ বুধবার থেকে গোলপাতা আহরণের কাজ শুরু করেছেন বাওয়ালিরা।

সুন্দরবন পূর্ব বনবিভাগের চাঁদপাই রেঞ্জের স্টেশন অফিসার শেখ মো. আনিসুর রহমান জানান, চাঁদপাই রেঞ্জে দুইটি গোলপাতার কুপ রয়েছে। একটি শেলা গোলপাতা কুপ, অপরটি চাঁদপাই গোলপাতা কুপ। এই কুপ দুইটি থেকে এ মৌসুমে ৭ হাজার ৫০ মেট্টিক টন গোলপাতা আহরণ করা যাবে। এরমধ্যে শেলা কুপ থেকে ৩ হাজার ৬শ ৫০ মেট্টিক টন ও চাঁদপাই কুপ থেকে ৩ হাজার ৪শ মেট্টিক টন গোলপাতা আহরণের লক্ষ্যমাত্রা রয়েছে।

আহরণকৃত প্রতি কুইন্টাল গোলপাতায় বনবিভাগকে ৭০ টাকা করে রাজস্ব প্রদাণ করতে হবে বাওয়ালিদেরকে। গত মৌসুমে বনবিভাগের রাজস্ব আদায় হয়েছিল প্রায় ৯ লাখ টাকা। তবে গতবারের তুলনায় এবার পাস-বিএলসি কম হওয়ায় লক্ষ্যমাত্রা অর্জন নিয়ে শঙ্কায় রয়েছে বনবিভাগ। কারণ দিনকে দিন বাওয়ালিদের সংখ্যা কমে আসছে। এ মৌসুমে এখন পর্যন্ত শেলা কুপে মাত্র ১৬টি পাস (বডি/মানুষের পাস) ও ২৮টি বিএলসি (বোট লাইসেন্স সার্টিফিকেট) দেওয়া হয়েছে। বাওয়ালিদের নেওয়া এ পাসের মেয়াদ থাকবে ২৬দিন। নির্দিষ্ট এই সময়ের মধ্যেই তাদেরকে সুন্দরবন থেকে গোলপাতা আহরণ শেষে নৌকা নিয়ে লোকালয়ে ফিরে আসতে হবে। নতুবা গুনতে হবে জরিমানা।

এছাড়া পাস ব্যতিরেকে অতিরিক্ত গোলপাতা আহরণ করলেও জরিমানায় পড়বেন বাওয়ালিরা। গোলপাতা আহরণকালে বনের অন্য কোন গাছপালা কাটলে কিংবা ক্ষতিসাধন করলে তাতেও জেল-জরিমানার বিধান রয়েছে।

সুন্দরবনের ঢাংমারী স্টেশন অফিসার মো. মহসিন আলী বলেন, ফেব্রুয়ারির শেষের দিকে শেলা কুপের গোলপাতা আহরণ সম্পন্ন হবে। এরপরই চাঁদপাই কুপের গোলপাতা আহরণ শুরু হবে। মার্চ মাস পর্যন্ত চলবে চাঁদপাই কুপের গোলপাতা আহরণ। তিনি বলেন, মূলত প্রতি বছর ডিসেম্বরে গোলপাতা আহরণ মৌসুম শুরু হলেও বাওয়ালিরা নৌকা প্রস্তুত করে নিয়ে আসতে দেরি হওয়াতে এবার আহরণও দেরিতে শুরু হয়েছে।

Facebook Comments Box
advertisement

Posted ৮:১২ পূর্বাহ্ণ | বুধবার, ৩১ জানুয়ারি ২০২৪

দৈনিক গণবার্তা |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

এ বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সম্পাদকঃ শাহিন হোসেন

বিপিএল ভবন (৩য় তলা ) ৮৯, আরামবাগ, মতিঝিল, ঢাকা ।

মোবাইল : ০১৭১৫১১২৯৫৬ ।

ফোন: ০২-২২৪৪০০১৭৪ ।

ই-মেইল: ganobartabd@gmail.com