আজ, রবিবার


২০শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৬ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম
শিরোনাম

ব্রাজিলে বন্যা ও ভূমিধস: মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১০০

বৃহস্পতিবার, ০৯ মে ২০২৪
ব্রাজিলে বন্যা ও ভূমিধস: মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১০০
সংবাদটি শেয়ার করুন....

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ব্রাজিলের দক্ষিণাঞ্চলের রিও গ্রান্ডে দো সুলে রাজ্যে প্রলয়ংকরী বন্যা ও ভূমিধসে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১০০ জনে গিয়ে দাঁড়িয়েছে। বৃহস্পতিবার (০৯ মে) সংবাদ মাধ্যম আল-জাজিরার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানা গেছে।

বন্যা ও ভারী বৃষ্টিপাতের ফলে অনেক অঞ্চলের বাসিন্দাদের খাবার পানির সংকট দেখা দিয়েছে। বিচ্ছিন্ন রয়েছে বিদ্যুৎ সংযোগ। এমনকি অনেক জায়গায় টেলিফোন এবং ইন্টারনেট পরিষেবা বন্ধ রয়েছে। ফলে এসব অঞ্চলের বাসিন্দাদের সাহায্য চাওয়ার জন্য যোগাযোগ করার কোনো উপায় নেই।

রিও গ্রান্ডে দো সুলের সিভিল ডিফেন্স কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, ১০০ জন নিহত হওয়ার পাশাপাশি এখন পর্যন্ত ১২৮ জন নিখোঁজ রয়েছেন। উরুগুয়ে ও আর্জেন্টিনার সীমান্তবর্তী এ রাজ্যের অন্তত ৪০০টি শহর বন্যার পানিতে তলিয়ে গেছে। ফলে বাস্তুচ্যুত হয়েছেন ১ লাখ ৬০ হাজারেরও বেশি মানুষ। রিও গ্রান্ডে দো সুলের রাজ্য কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, সকল মৃত্যুই বন্যা, ঝড় ও ভূমিধসের কারণে ঘটেছে কিনা, তা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

বন্যার কারণে রাজ্যটির বিভিন্ন এলাকার রাস্তা ও অসংখ্য সেতু ধসে পড়েছে। প্রবল ঝড়ের কারণে একটি জলবিদ্যুৎকেন্দ্র ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। বেন্টো গনকালভস শহরের একটি শহর রক্ষাবাঁধের আংশিক ধসে পড়েছে।

রিও গ্রান্ডে দো সুলের রাজধানী পোর্তো আলেগ্রেতে গুয়াইবা হ্রদের পাড় ভেঙে গেছে। এছাড়া পোর্তো আলেগ্রের আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর অনির্দিষ্টকালের জন্য সমস্ত ফ্লাইট স্থগিত করেছে। এদিকে বন্যাকবলিত অঞ্চল পরিদর্শন করেছেন ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট লুইজ ইনাসিও লুলা দা সিলভা। তিনি সরাসরি উদ্ধার অভিযান দেখেছেন। তার প্রধান যোগাযোগ কর্মকর্তা পাওলো পিমেন্তা জানিয়েছেন, প্রেসিডেন্ট লুলা আবারও উদ্ধার কার্যক্রম তদারকি করতে যাবেন।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম এক্সে দেওয়া এক পোস্টে লুলা বলেন, ‘কেন্দ্রীয় সরকার রাজ্য সরকারের সঙ্গে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রাখছে। উদ্ধারকর্মীরা প্রাণপণ চেষ্টায় উদ্ধারকাজ চালিয়ে যাচ্ছেন।’

প্রায় ১৫ হাজার সৈন্য, অগ্নিনির্বাপক, পুলিশ এবং স্বেচ্ছাসেবীরা আটকে পড়াদের উদ্ধার এবং পরিবহন সহায়তার জন্য কাজ করছেন। পর্যটকদের কাছে জনপ্রিয় পোর্তো অ্যালেগ্রের একটি অংশ গ্যাসোমেট্রো। এ শহরে বুধবারও (০৮ মে) পানি বাড়তে দেখা গেছে। এতে উদ্ধার কার্যক্রম আরও জটিল হবে বলে মনে করছেন কর্তৃপক্ষ।

৩০ বছর বয়সী লুয়ান পাস বার্তাসংস্থা এএফপিকে বলেছেন, আশপাশের এলাকা দুর্গন্ধযুক্ত নদীতে পরিণত হয়েছে। কেবল পায়ে হেঁটে বা নৌকায় আপনি পার হতে পারবেন। অন্য কোনো উপায় এখানে নেই। পোর্তো অ্যালেগ্রের আরেক বাসিন্দা আদ্রিয়ানা ফ্রেইটাস বলেছেন, আমি সবকিছু হারিয়ে এখন নিঃস্ব। মনে হচ্ছে সব শেষ হয়ে গেছে আমার। এদিকে আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, রিও গ্রান্ডে দো সুলে রাজ্যের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলে আরও বৃষ্টিপাতের আশঙ্কা রয়েছে। তবে বৃষ্টিপাত আরও কমে আসবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। জলবায়ু বিশেষজ্ঞরা বলছেন, জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে অতিবৃষ্টি ও বন্যার মতো প্রাকৃতিক দুর্যোগ বাড়ছে।

Facebook Comments Box
advertisement

Posted ৯:৩৪ পূর্বাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, ০৯ মে ২০২৪

দৈনিক গণবার্তা |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

এ বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সম্পাদকঃ শাহিন হোসেন

বিপিএল ভবন (৩য় তলা ) ৮৯, আরামবাগ, মতিঝিল, ঢাকা ।

মোবাইল : ০১৭১৫১১২৯৫৬ ।

ফোন: ০২-২২৪৪০০১৭৪ ।

ই-মেইল: ganobartabd@gmail.com