মঙ্গলবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৩ আশ্বিন ১৪২৮, দুপুর ১২:২৮
শিরোনাম :
৪ শতাংশ সুদে ঋণ দেবে লংকাবাংলা ফাইন্যান্স টাঙ্গাইল জেলা যুবলীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত মার্কেন্টাইল ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্স এর রাজশাহী বিভাগের উন্নয়ন সভা এনআরবি ইসলামিক লাইফের ব্যবসা উন্নয়ন সভা অনুষ্ঠিত মুজিববর্ষ বধির দাবা প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ এনআরবি গ্লোবাল লাইফ ইন্স্যুরেন্সের ৮ম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত উইংস গ্রুপ ও গার্ডিয়ান লাইফের মধ্যে গ্রুপ ইন্স্যুরেন্স চুক্তি স্বাক্ষর সেরা ব্যাংকের পুরস্কার পেল এনআরবিসি ব্যাংক ক্ষুদ্র ও মাঝারি উদ্যোক্তাদের ৪ শতাংশ সুদে ঋণ দেবে এনআরবিসি ব্যাংক মার্কেন্টাইল লাইফ ইন্স্যুরেন্সের মাগুরা সার্ভিস সেন্টারের উদ্বোধন

ভরাট হচ্ছে কৃষি জমি : রূপগঞ্জের কুতুবপুর মৌজার পাঁচ হাজার পরিবার দিশেহারা

এস এম জহিরুল ইসলাম : নারায়ণগঞ্জ জেলার রূপগঞ্জ উপজেলার ভোলাব ইউনিয়নের কুতুবপুর মৌজার পুবেরগাঁও এলাকার প্রায় ৫ হাজার পরিবার কিছু প্রভাবশালী হাউজিং কোম্পানীর অপহাতছানির কারণে দিশেহারা হয়ে পড়েছে। এইসব হাউজিং কোম্পানী এলাকার সাধারণ মানুষের কৃষি জমি, মাছের পুকুর ও বসত ভিটায় রাতের আধারে বালু ফেলে কৌশলে দখলের পায়তারা করছে। এর বিরুদ্ধে এলাকাবাসী ইতিপূর্বে মানববন্ধনসহ প্রশাসনের কাছে অভিযোগ করেছেন। কিন্তু তাতে কোন লাভ হয়নি বরং নিরীহ এলাকাসীকে মিথ্যা মামলার শিকার হতে হয়েছে।

কিন্তু আবাসন কোম্পানীর হাত থেকে এ যাবৎ কেউ রেহাই পায়নি। বিভিন্ন আবাসন কোম্পানীর মালিকরা অন্যের কৃষি জমিতে বড় বড় সাইন বোর্ড লাগিয়ে স্থানীয় প্রভাবশালীদের ছত্রছায়ায় বালু ভরাট করে চলছে। এতে কেউ বাধা দিলে তার উপর নেমে আসে নানা রকম হামলা ও মিথ্যা মামলার খড়ক। কাউকে কাউকে জীবননাসের হুমকিও দেয় কোম্পানীর পালিত সন্ত্রাসীরা।

ঐ ৫ শত পরিবার ভূমি দস্যুদের হাত থেকে বাঁচতে গত ১৬ আগস্ট রূপগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর কৃষি জমি ও বসতবাড়ীর নিরাপত্তা চেয়ে একটি আবদেন করেন। সেই আবেদন অনুযায়ী জানা যায়, কুতুবপুর মৌজার পূবেরগাঁও এলাকার বেশীরভাগ মানুষের পেশা কৃষিকাজ ও বৎস্যজীবি। আবাসন কোম্পানীগুলো বালু ভরাটের কারণে কৃষি জমি ও পুকুরগুলো বিলুপ্ত হতে চলছে। সেইগুলো রক্ষার জন্য প্রশাসনের কাছে জোর আবদেন জানাচ্ছেন।

এলাকাবাসী তাদের বসতভিটা ও কৃষি জমি রক্ষার জন্য ঐ আবেদনের কপি রূপগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান ও ভোলার ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের নিকট আবেদনের অনুলিপি দিয়েছে।
এ বিষয়ে ভোলার ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ আলমগীর হোসেন সাংবাদিকদের জানান, জনগণের আবেদনের বিষয়টি আমলে নিয়ে বার বার আবাসন প্রকল্পের মালিক পক্ষ ও প্রশাসনকে জানানো হয়েছে। কিন্তু তারা এ বিষয়টিকে গুরুত্ব দিচ্ছে না।

সংবাদটি শেয়ার করুন...

Developed by: Engineer BD Network