বুধবার, ৮ ডিসেম্বর ২০২১, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, সকাল ৮:৩৬

তৃতীয়বারের বন্যায় ভাবছে জামালপুরের বানভাসীরা

এস এম দেলোয়ার হোসেন, জামালপুর থেকে : জামালপুরের ভারী বর্ষণে উজান থেকে নেমে অাসা ভারতীয় পাহারী ঢলে আবারো তৃতীয়বারের মতো ভয়াবহ বন্যায় বিভিন্ন অঞ্চল বন্যার পানি  প্লাবিত হয়েছে। এতে জামালপুরের জেলার  সাতটি উপজেলার মানুষই পানিবন্দি রয়েছে। এদের মধ্যে  বেশী ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ইসলামপুর ও দেওয়ানগঞ্জ উপজেলার বন্যা বানভাসি মানুষেরা।

জামালপুর পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপ সহকারি প্রকৌশলী  আফিজুর রহমান  জানান, বাহাদুরাবাদ ঘাট পয়েন্টে শুক্রবার সকাল ১১  টার সময় যমুনা নদীর পানি বিপদ সীমার ১০৭ সেন্টি মিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।
স্থানীয় সুত্রে জানা যায়  ,  গত ২০ দিনের মধ্যে  তিনবার  বন্যা পানিতে  আমাদের অনেক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।
আবার  ৪ দিন ধরে বন্যার পানি দূরুত বৃদ্ধি হচ্ছে  ,শুনেছি ২৮ জুলাই পর্যন্ত পানি বৃদ্ধি পাবে, তবে এভাবে পানি বৃদ্ধি হলে আমাদের  গরু ছাগল হাঁস মুরগি বিভিন্ন প্রাণী ও মানুষের ভিশন  খাদ্য সংকট দেখা দিবে। বন্যায় যমুনা তীরবর্তী   চরাঞ্চল ও বহু নিম্নাঞ্চল ইতিমধ্যেই প্লাবিত হয়ে হয়েছে। বিশেষ করে শুক্রবার  সকালের মধ্যেই জামালপুর জেলার ইসলামপুর ও দেওয়ানগঞ্জ উপজেলাধীন যমুনার বিভিন্ন অঞ্চল সমূহের প্লাবিত হয়েছে। দেওয়ানগঞ্জে খুলাবাড়ী,মন্ডলবাজার, উপজেলা নির্বাহী এলাকা,স্টেশন, গুজিমারি,ডাকরা পাড়া, মোল্লাপাড়া বেলতলী বাজার,দেওয়ানগঞ্জ পৌরসভা সুগার মিল  সহ অসংখ্য অঞ্চল  সমুহের  প্লাবিত হয়ে বহু কৃষকের পাট ও আউশ ধান ক্ষেত পানির নিচে তলিয়ে যাচ্ছে।  এসব অন্ততঃ ৩০ হাজার বাড়ীঘরে বন্যার পানি প্রবেশ হয়েছে।  ইতিমধ্যেই বন্যা কবলিত এলাকায় বিশুদ্ধ পানি ও গো-খাদ্যের সংকট শুরু হয়েছে। এবছরের বন্যায় যমুনার বুকে জেগে উঠা দেওযানগঞ্জের খোলাবাড়ী এবং ইসলামপুরের শ্বশারিয়াবাড়ী।

সংবাদটি শেয়ার করুন...

Developed by: Engineer BD Network