বৃহস্পতিবার, ৯ ডিসেম্বর ২০২১, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, বিকাল ৪:৫৮

খুলনায় আরেকটি করোনা হাসপাতালের দাবিতে মানববন্ধন

খুলনা ব্যুরো: খুলনায় নমুনা সংগ্রহের পরিমাণ বৃদ্ধি ও দ্রুত রিপোর্ট দেওয়া এবং পর্যাপ্ত অক্সিজেন সরবরাহসহ আরও একটি করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতাল স্থাপনের দাবিতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বুধবার (২২ জুলাই) দুপুরে মহানগরীর সাতরাস্তা মোড়ের শহীদ ডা. মিলন চত্বরে অনুষ্ঠিত এ মানববন্ধনের আয়োজক জনউদ্যোগ খুলনা।

সভায় বক্তব্য দেন কৃষি ও পরিবেশ রক্ষা আন্দোলন সভাপতি শ্যামল সিংহ রায়, খুলনা নাগরিক সমাজের আহ্বায়ক বীর মুক্তিযোদ্ধা আফম মহসীন, খুলনা উন্নয়ন ফোরামের চেয়ারম্যান শরীফ শফিকুল হামিদ চন্দন,  বাংলাদেশ মানবাধিকার সংস্থার সমন্বয়কারী অ্যাডভোকেট মোমিনুল ইসলাম, ওয়ার্কার্স পার্টির মহানগর কমিটির সভাপতি শেখ মফিদুল ইসলাম,সিপিবি’র জেলা কমিটির সদস্য মিজানুর রহমান বাবু, বাসদের সমন্বয়কারী জনার্দন নান্টু, গণ সংহতি আন্দোলনের আহ্বায়ক মনির হোসেন চৌধুরী, নিরাপদ সড়ক চাইয়ের সভাপতি এস এম ইকবাল হোসেন বিপ্লব, সম্মিলিত বিরোধী জোটের এম এ কাশেম, আগুয়ান ৭১-এর সভাপতি মো. আব্দুল্লাহ চৌধুরী প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, করোনা মহামারির মধ্যে দেশের স্বাস্থ্য খাতে নানা অনিয়ম ও বিশৃঙ্খলায় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ও অধিদপ্তরের কে কে জড়িত, তা চিহ্নিত করা হচ্ছে না। বরং একে অপরকে দোষারোপ করে মন্ত্রণালয় ও অধিদপ্তর দায় এড়ানোর চেষ্টা চালাচ্ছে। স্বাস্থ্যখাতে অব্যবস্থাপনা দীর্ঘদিনের। করোনার সময়ে সেটি বেশি করে ধরা পড়ছে। সাধারণ মানুষকে ভুগতে হচ্ছে। মাঝে মধ্যে হাসপাতাল ও ক্লিনিকে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর অভিযানের ফলে কিছুদিন আলোচনা হয়, কিন্তু দীর্ঘ মেয়াদে ব্যবস্থা নেওয়া হয় না। স্বাস্থ্য খাতকে জনবান্ধব করতে হলে জাতীয়ভাবে সিদ্ধান্ত নিতে হবে।

বক্তারা আরও বলেন, নগরীতে করোনা ভাইরাসের রিপোর্ট নিয়ে জনগণকে পরতে হচ্ছে বিপাকে। সময়মত রিপোর্ট পাচ্ছে না। কারোর রিপোর্ট আবার তারা জানতেও পারছে না। এভাবে ঝুঁকির মধ্যে কাটছে নগরবাসী। এ থেকে পরিত্রাণ চায়। করোনা হাসপাতালের বর্জ্য ব্যবস্থাপনা ঠিকমত না হওয়ায় স্বাস্থ্যঝুঁকি বাড়ছে। হাসপাতালে আসন সংখ্যা সীমিত হওয়ায় সংকট বাড়ছে। লাইসেন্সবিহীন অসংখ্য ক্লিনিক নগরীতে চলছে। স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য যে যন্ত্রপাতি তাও অধিকাংশ জায়গায় মেয়াদ উত্তীর্ণ যন্ত্রপাতি দিয়ে চলছে ।

বক্তারা স্বাস্থ্যখাতে এ অনিয়ম দূর করতে কঠোর আইন প্রণয়নের দাবি জানান।

সংবাদটি শেয়ার করুন...

Developed by: Engineer BD Network