শনিবার, ৮ মে ২০২১, ২৫ বৈশাখ ১৪২৮, দুপুর ১:২১
শিরোনাম :
মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে অভিনন্দন জানালেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মুলাদীতে নবাগত উপজেলা নির্বাহী অফিসার নূর মোহাম্মাদ হোসাইনীর যোগদান মুলাদীতে শুভ্রতা ছড়িয়ে বিদায়ের বেলা সকলের ভালোবাসায় সিক্ত হলেন ইউএনও শুভ্রা দাস মুলাদীতে ইউএনও শুভ্রা দাসকে বিদায়ী সংবর্ধণা মুলাদীতে কর্মহীন দরিদ্রদের মাঝে উপজেলা প্রশাসনের দোকান ও ভ্যান বিতরণ নিজেকে জীবিত প্রমাণ করতে না পারায় ভাতা পাচ্ছেন না অশীতিপর বৃদ্ধা হাচেন ভানু মুলাদীতে থানা পুলিশের উদ্যোগে মাস্ক বিতরণ শিশুদের জীবনকে আলোকিত ও সুন্দর হিসেবে গড়ে তুলুন : প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ও কর্ম থেকে রাজনীতিবিদদের শিক্ষা নেয়ার আহ্বান রাষ্ট্রপতির বঙ্গবন্ধুর জন্ম শতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উপলক্ষে দশ দিনের কর্মসূচি আজ থেকে শুরু

মুলাদীতে জমি বিরোধের জেরধরে সংঘর্ষ ॥ আহত ৬

মুলাদী প্রতিনিধি ॥ মুলাদীতে জমি বিরোধের জেরধরে সংঘর্ষে কমপক্ষে ৬জন আহত হয়েছে। গতকাল বুধবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে উপজেলার কাজিরচর ইউনিয়নের বাদামতলা এলাকার মৃত কদম আলী বেপারীর পুত্র শাহজাহান বেপারীর রেকর্ডীয় জমিতে এ সংঘর্ষ ঘটে। এঘটনায় মুলাদী থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। মামলা সূত্রে জানাগেছে শাহজাহান বেপারী কাজিরচর ইউনিয়নের বাদামতলা এলাকার একটি জমি দীর্ঘ দিন ধরে ভোগদখল করে আসছিলেন। কিছুদিন আগে চরকমিশনার গ্রামের রাজ্জাক ফকিরের ছেলে ফোরকান ফকির ও তার লোকজন ওই জমি দখলের পায়তারা চালায়। বুধবার সকালে শাহজাহান বেপারী লোকজন নিয়ে বিরোধীয় জমিতে বালু ভরাটের জন্য কাচা তৈরি করে শুরু করলে ফোরকান ফকির, নজরুল সরদার, আহসান সরদার, হেমায়েত সরদার, আনোয়ার সরদারসহ ২০/২৫জন লোক দেশিয় অস্ত্র-শস্ত্র নিয়ে কাচা তৈরিতে বাধা দিতে গেলে উভয়পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এতে শাহজাহান বেপারী পক্ষের শাহজাহান বেপারী, নিলুফা বেগম, মাইদুল বেপারীসহ ৫জন এবং ফোরকান ফকির গ্রুপের ফেরদৌসী বেগম আহত হয়। স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে মুলাদী হাসপাতালে ভর্তি করেছে। এঘটনায় শাহজাহান বেপারী বাদী হয়ে ২২জনের বিরুদ্ধে মুলাদী থানায় মামলা দায়ের করেছেন। অপরদিকে ফেরদৌসী বেগম বাদী হয়ে শাহজাহান বেপারী গ্রুপের লোকজনের বিরুদ্ধে মুলাদী থানায় মামলা দায়ের করেছেন। এব্যাপারে মুলাদী থানার ওসি ফয়েজ উদ্দীন মৃধা জানান উভয়পক্ষের লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। তদন্তপূর্বক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Developed by: NEXTZEN LIMITED