শনিবার, ২৪ জুলাই ২০২১, ৯ শ্রাবণ ১৪২৮, রাত ১২:২৪

ভারতের সম্পদ বাজেয়াপ্ত করেছে কেয়ার্ন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : মামলায় জিতে ফ্রান্সে ভারত সরকারের ২০টি সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করেছে ব্রিটিশ তেল কোম্পানি কেয়ার্ন এনার্জি। লন্ডন ফাইন্যান্সিয়াল টাইমসের এক প্রতিবেদনে এই তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে। ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গত ১১ জুন ফ্রান্সের আদালত কেয়ার্ন এনার্জিকে ভারত সরকারের সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করার নির্দেশ দিয়েছিলেন। বুধবার সেই আইনি প্রক্রিয়া সম্পন্ন হওয়ার পরই সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করে কেয়ার্ন। এ নিয়ে অস্বস্তির মুখে পড়েছে ভারতের অর্থ মন্ত্রণালয়। তারা জানিয়েছে, এ ব্যাপারে সরকার কিছু জানে না।

কেয়ার্ন এনার্জির বকেয়া কর মামলায় সংস্থাটিকে সুদ এবং খরচ মিলিয়ে ১৭২ কোটি ৫০ লাখ ডলার ফেরাতে গত বছরের ডিসেম্বরে ভারত সরকারকে নির্দেশ দিয়েছিল নেদারল্যান্ডসের আন্তর্জাতিক সালিসি ট্রাইব্যুনাল, যার বিরুদ্ধে আবেদনও জানিয়েছিল দিল্লি।

সালিসি আদালতের সেই নির্দেশ অনুযায়ী ভারত সরকারকে প্রাপ্য অর্থ মেটানোর জন্য বারবারই সতর্ক করেছে কেয়ার্ন। একই সঙ্গে তেল কোম্পানিটি জানিয়েছিল, তাদের বকেয়া অর্থ না মেটালে বিদেশে ভারতীয় সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করে বিক্রি করা হবে। সেই লক্ষ্যে ভারত সরকারের কিছু সম্পত্তিও চিহ্নিত করার কাজ শুরু করে দেয় তারা।

এই ঘাত-প্রতিঘাতের মধ্যেই বুধবার কেয়ার্ন দাবি করে, তারা প্যারিসে ২০টি ভারতীয় সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করার জন্য একটি ফরাসি আদালতের ছাড়পত্র জোগাড় করেছে। এর জেরে অস্বস্তিতে পড়ে যায় ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার। অর্থ মন্ত্রণালয় বিবৃতি দিয়ে জানায়, সরকার ঘটনার সত্যতা যাচাইয়ের চেষ্টা করছে। আদালতের নির্দেশ হাতে এলে প্রয়োজনীয় আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে, যাতে ভারতের স্বার্থ রক্ষা হয়। তবে অর্থ মন্ত্রণালয়ের দাবি, কোনো ফরাসি আদালত ভারত সরকারের বক্তব্য জানতে নোটিশ পাঠায়নি। নির্দেশ বা বার্তাও মেলেনি।

কেয়ার্ন ইন্ডিয়া ও কেয়ার্ন এনার্জির মধ্যে মালিকানা হাতবদলের ওপরেই আয়কর দপ্তর বকেয়া ১০ হাজার ২৪৭ কোটি রুপি কর দাবি করেছিল।

ইউপিএ জমানায় চালু ‘রেট্রোস্পেকটিভ ট্যাক্স’ বা পুরোনো লেনদেনে কর বসানোর ক্ষমতা প্রয়োগ করে সরকার তা আদায় করতে নামে। টাকা না পেয়ে মোদি সরকার কেয়ার্নের শেয়ার, ডিভিডেন্ড ও ফেরতযোগ্য কর বাজেয়াপ্ত করে, যার বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক সালিসি আদালতে যায় কেয়ার্ন এবং মামলায় জেতে। তারপর থেকেই সালিসি আদালতের নির্দেশ অনুযায়ী অর্থ ফেরত পেতে মরিয়া কেয়ার্ন বিভিন্ন দেশে সরকারের সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করতে উঠেপড়ে লেগেছে। এয়ার ইন্ডিয়ার মতো রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থার বিমানসহ নানা সম্পত্তি, শিপিং করপোরেশনের জাহাজ, স্টেট ব্যাংকের সম্পদও তাদের নজরে আছে।

সালিসি আদালতের রায়ের মান্যতা চেয়ে যুক্তরাষ্ট্র, ব্রিটেন, কানাডা, ফ্রান্স, সিঙ্গাপুর, নেদারল্যান্ডসসহ আরও তিনটি দেশে মামলা করে কেয়ার্ন। সালিসি আদালতের নির্দেশ সত্ত্বেও ভারত সরকার সেই বকেয়া অর্থ পরিশোধে ব্যর্থ হওয়ায় এবার ফ্রান্সের আদালতের নির্দেশমতো সেই দেশে ভারত সরকারের সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করার পথে হাঁটল কেয়ার্ন।

Developed by: NEXTZEN LIMITED